Tourism, bhraman,

দিঘা – দিঘা হল পশ্চিমবঙ্গের পূর্ব মেদিনীপুর জেলার অন্যতম সমুদ্র সৈকত। সমগ্র পূর্ব ভারতের সবচেয়ে বেশি পর্যটকের আনাগোনা এই শহরে। 1923 সালে ব্রিটিশ ভ্রমণকারী জন ফ্রাঙ্ক স্মিথ এখানকার সৌন্দর্য্যে মুগ্ধ হয়ে এখানেই বসবাস শুরু করেন। দিঘার আদি নাম ছিল বীরকুল। ভারতের তৎকালীন ভাইসরয় ওয়ারেন হেস্টিংস একটি চিঠিতে দিঘাকে ‘প্রাচ্যের ব্রাইটন’ বলে উল্লেখ করেছেন। দিঘাকে কেন্দ্র করে জুনপুট থেকে ওড়িশা বর্ডারের উদয়পুর বিচ পর্যন্ত প্রায় দীর্ঘ 30 কিলোমিটার সমুদ্র সৈকত বর্তমানে পশ্চিমবঙ্গের উল্লেখযোগ্য পর্যটন স্থল। বিখ্যাত সৈকতগুলি হল দক্ষিণ পুরুষোত্তমপুর, মন্দারমণি, তাজপুর, চাঁদপুর-বোধড়া, শংকরপুর, দীঘা মোহনা, পুরাতন দিঘা, নতুন দিঘা ও উদয়পুর। এছাড়া সুবর্ণরেখা নদীর মোহনায় অবস্থিত ওড়িশার তালসারি সী বিচও ভ্রমণ পিপাসু মানুষের কাছে অতি প্রিয়। সব সী বিচেই দিঘা থেকে গাড়ি নিয়ে সহজেই ঘুরে নেওয়া যায়।  আরো কয়েকটি দর্শনীয় স্থান যেখানে প্রচুর পরিমাণে পর্যটকরা যান সেগুলি হল মেরিন এ্যকোরিয়াম, দিঘা বিজ্ঞান কেন্দ্র,  চন্দনেশ্বর মন্দির ইত্যাদি। বর্তমানে গত দু বছরে প্রথমে ‘আমপান ‘ ও পরে ‘ইয়াস’ ঘূর্ণিঝড় বাঙালির অতি প্রিয় এই সমুদ্র সৈকতে একটা বিভীষিকার স্পষ্ট ছাপ ফেলে গেছে একথা বলা যেতেই পারে।তাছাড়া মানুষের কৃতকর্মের জন্য দিঘার বিখ্যাত ঝাউবনের প্রায় সবটাই শেষ হয়ে গেছে যার ফলে দিন দিন প্রকৃতির নির্মম আঘাতে দিঘা আর কত দিন দিঘা থাকবে তা নিয়ে সন্দেহ দেখা দিয়েছে। এজন্য অবিলম্বে স্থানীয় মানুষ, পর্যটক ও সরকারের সঠিক ভাবনা চিন্তা করে ব্যাবস্থা গ্রহণ করা প্রয়োজন।


কীভাবে দিঘা যাবেন ?

পশ্চিমবঙ্গ সহ দেশের সব জায়গা থেকেই খুব সহজে হাওড়া থেকে ট্রেন অথবা সড়কপথে দীঘা পৌঁছানো যায়। হাওড়া থেকে ট্রেনে 02257 তাম্রলিপ্ত এক্সপ্রেস (06.50),  কান্ডারী এক্সপ্রেস (14.25),  দীঘা এসি সুপার এক্সপ্রেস (11.10) ও শুধু শনিবার 05722 পাহাড়িয়া এক্সপ্রেস (07.50) এ করে সরাসরি দিঘা যাওয়া যায়। এছাড়া হাওড়া ও কলকাতার বিভিন্ন জায়গা থেকে মাত্র চার ঘন্টায় বাইক, গাড়ি ও বাসে করে দিঘা পৌঁছানো যায়।কোথায় থাকবেন ? দিঘাতে থাকার জন্য প্রচুর হোটেল রয়েছে। তবে সিজিন অনুযায়ী দামের তারতম্য দেখা যায়। ওয়েস্টবেঙ্গল ট্যুরিসম ডেভেলপমেন্ট কর্পোরেশনের দিঘালী ট্যুরিসম প্রপার্টি (দিঘা ট্যুরিস্ট লজ) ও ওয়েস্টবেঙ্গল ইয়ুথ হোস্টেল ছাড়া প্রায় সব  বেসরকারি হোটেলই সময় সময় ঘর ভাড়ার পরিবর্তন ঘটে।   



Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published.